Home Blog

বুড়িগঙ্গা নদীর প্রায় এক একর জমি ভরাট করে পাথর ব্যবসা

0

বুড়িগঙ্গা নদীর প্রায় এক একর জমি ভরাট করে রীতিমতো পাথরের ব্যবসা করছেন ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) হাজী মোহাম্মদ সেলিম। পাথর মজুদ ও ওঠানামার সুবিধার্থে কেরানীগঞ্জ থানার মধ্যেরচর মৌজায় ৮টি সীমানা পিলার থেকে নদীর ভেতরে কয়েকশ’ গজ পর্যন্ত ভরাট করা হয়েছে।

নদী দখল ও ভরাটের অভিযোগে মদিনা মেরিটাইমে গত দুই বছরে কয়েক দফায় অভিযান চালানো হয়। মদিনা মেরিটাইম হল- হাজী মোহাম্মদ সেলিমের মালিকানাধীন মদিনা গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান। অভিযানে সেখান থেকে কয়েকজনকে হাতেনাতে ধরে মামলা দায়ের করে পুলিশ। পাশাপাশি তীরভূমি ব্যবহার সংক্রান্ত এই প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স স্থগিত করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। তবুও ক্ষমতার জোরে নদীর পাড়ে পাথর ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে মদিনা মেরিটাইম।

শুধু তাই নয়, দখল করা জায়গায় ওয়াচ টাওয়ারসহ বিভিন্ন স্থাপনাও নির্মাণ করা হয়েছে। এমনকি ভরাট করা জমিতে লাগানো হয়েছে বেশ কয়েকটি সাইনবোর্ড। যেখানে লেখা আছে- ‘ক্রয়সূত্রে এ জমির মালিক মদিনা মেরিটাইম লি.র পক্ষে মোহাম্মদ সোলায়মান সেলিম। তিনি হাজী সেলিমের ছেলে ও মদিনা গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি)। যদিও এসব জমি কেনা বলে দাবি করছে মদিনা গ্রুপের কর্মকর্তারা।

সরেজমিন পরিদর্শন ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে উল্লিখিত সব তথ্য। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নৌপ্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী যুগান্তরকে বলেন, বৈধ ও অবৈধভাবে কে কে নদী ও নদীর জমি ব্যবহার করছে তা দেখভালের দায়িত্ব বিআইডব্লিউটিএর। সংস্থাটিকে এসব বিষয় কঠোরভাবে দেখভালের নির্দেশনা দেয়া আছে। তারাই বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক বলেন, বুড়িগঙ্গার পাড়ে যেখানে পাথর ব্যবসা চলছে সেখানে একাধিকবার অভিযান চালানো হয়েছে। নদী দখলের দায়ে কয়েকজনকে আটকও করা হয়। আবারও নদী দখলের প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নথিপত্র বিশ্লেষণে দেখা গেছে, নদীর পাড়ে ২২ শতাংশ তীরভূমি ব্যবহারের জন্য মদিনা মেরিটাইমকে ২০১৮ সালের ১২ নভেম্বর লাইসেন্স দেয় বিআইডব্লিউটিএ। শর্ত অনুযায়ী, ওই জায়গায় ১২০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৪০ ফুট প্রস্থবিশিষ্ট ভাসমান বার্জ থাকবে। বার্জের ওপর ১৪০ বর্গফুটের কনভেয়ার বেল্ট ও ৩২০ বর্গফুটের ক্রেন স্থাপন করে জাহাজ থেকে পাথর, কয়লা, ভুট্টা ও অন্যান্য সমজাতীয় পণ্য খালাস করতে পারবে। নদী ভরাট ও অন্য কোনো স্থাপনা নির্মাণ না করাসহ কয়েকটি শর্ত দেয়া হয় লাইসেন্সে। কিন্তু ওই লাইসেন্সের মেয়াদ ২০১৯ সালের ডিসেম্বরেই শেষ হয়ে গেছে।

নদী ভরাট ও শর্ত ভঙ্গের দায়ে ওই লাইসেন্স স্থগিত করা হয়। আর পরবর্তীকালে আবেদন করা হলেও সেটি নবায়ন করেনি বিআইডব্লিউটিএ। বৃহস্পতিবার সরেজমিন দেখা গেছে, রাজধানীর বছিলা ব্রিজের দুই কিলোমিটার ভাটিতে কেরানীগঞ্জের মধ্যেরচর মৌজায় ঝাউচর খেয়াঘাট থেকে কমবেশি ৩০০ গজ দূরে বুড়িগঙ্গা নদীর পাড়ে অবস্থিত মদিনা মেরিটাইম কোম্পানির পাথর ব্যবসা কেন্দ্র।

লাইসেন্স স্থগিত থাকলেও পুরোদমে পাথর ব্যবসা করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। নিজের নামের কিছু জমিসহ নদীর ভরাট করা স্থানে পাকা দেয়াল দিয়ে ঘেরাও করা হয়েছে। প্রবেশ গেট ও ভেতরে ওয়াচ টাওয়ারে প্রহরীরা কড়া পাহারা দিচ্ছেন।

অনুমতি ছাড়া সেখানে প্রবেশে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। এই প্রতিবেদকের নাম গোপন রেখে কৌশলে ভেতরে প্রবেশ করে দেখা গেছে, দেয়ালের ভেতরে রয়েছে নদীর ৮টি সীমানা পিলার (সরকার নির্ধারিত)। সেই পিলারগুলো থেকে কয়েকশ’ ফুট পর্যন্ত নদী ভরাট করা হয়েছে। এতে নদীর অন্তত এক একর জমি এ প্রতিষ্ঠানটির দখলে চলে গেছে। এছাড়া এক প্রান্তে সম্প্রতি নদী ভরাট করার আলামতও পাওয়া গেছে। সেখানে ইট ও বালু ফেলানো হয়েছে।

সরেজমিন আরও দেখা গেছে, ওই সীমানার ভেতর কয়েক হাজার টন পাথর স্তূপ করে রাখা হয়েছে। পাথর লোড-আনলোড করার জন্য কয়েকটি ট্রাক ও ভেকু মেশিনও রয়েছে। তবে কোনো বার্জ বা কনভেয়ার বেল্ট সেখানে দেখা যায়নি। শুধু তাই নয়, নদীর পাড়ে মোহাম্মদ সোলায়মান সেলিমের নামে অন্তত ২০টি সাইনবোর্ড লাগানো আছে। এতে লেখা রয়েছে, মদিনা মেরিটাইম লিমিটেডের পক্ষে মোহাম্মদ সোলায়মান সেলিমের নামে কেনা হয়েছে। আরও কয়েকটি সাইনবোর্ড লাগানোর জন্য মজুদ অবস্থায় দেখা গেছে। এছাড়া সেখানে একটি ফিলিং স্টেশনও রয়েছে। ওই ফিলিং স্টেশন থেকে মদিনা গ্রুপের গাড়িতে তেল দেয়া হচ্ছে। নদীর পাড়ে জাহাজ নির্মাণের অবশিষ্টাংশ দেখা গেছে।

নদী দখল ও পাথর ব্যবসা নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ স্থানীয় বাসিন্দারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য দেয়ার পরই বাড়িতে হামলার শঙ্কা রয়েছে। এর আগেও এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএতে অভিযোগ করে কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি। উল্টো অভিযোগকারীদের হুমকি-ধমকি দেয়া হয়েছে। তবে ওই স্থাপনার পাশে ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে থাকা স্থানীয় বাসিন্দা মকবুল হোসেন বলেন, তিন বছর ধরে পাথর ব্যবসা শুরু হয়েছে। পাথর লোড-আনলোড করেছে। এখানে জাহাজও বানিয়েছে। তিনি বলেন, কিছু জমি কিনেছে, অনেকের জমি কেনার কথা বলে নিয়ে নিছে। যতই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়, তার কাজ সেই করে যাচ্ছে।

একসঙ্গে বড় পর্দায় আমির-শাহরুখ

0

ভারতের জি নিউজে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, আমির খানের পরবর্তী সিনেমা ‘লাল সিং চাড্ডা’য় অভিনয় করতে দেখা যাবে কিং খান শাহরুখকে।

দুই খান এক সঙ্গে এক সিনেমায় অভিনয় করবেন এটা নিঃসন্দেহে বলিউডপ্রেমীদের জন্য দারুণ খবর। কারণ, দুজনই বলিউডে ক্যারিয়ারের দীর্ঘ পথ পার করে দিলেও এক সিনেমায় এখন পর্যন্ত কাজ করেননি। ক্যারিয়ারের একদম শুরুতে দুজন একসঙ্গে ফটোশুটে অংশ নিলেও সিনেমায় এক সঙ্গে কাজ করেননি তারা।

বিভিন্ন সময় তাদের সম্পর্ক ভালো নয় বলে শোনা গেলেও তারা একে অপরের ভালো কাজ ও জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানান নিয়মিতই। কয়েকদিন আগে শাহরুখ খানের জন্মদিনেও শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন আমির।

‘লাল সিং চাড্ডা’ ছবিতে শাহরুখ হাজির হবেন একটি অতিথি চরিত্রে। ছবিতে আমির খানের বিপরীতে অভিনয় করছেন কারিনা কাপুর। আগামী বছর বড় দিনে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

মানসিক হাসপাতালে পুলিশ কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যা

0

ঢাকার আদাবরে একটি মানসিক রোগ নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য যাওয়া আনিসুল করিম নামে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার আদাবরের ‘মাইন্ড এইড’ নামের মানসিক রোগ নিরাময় কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর হাসপাতালের আটজনকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানান আদাবর থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) ফারুক মোল্লা।

নিহত আনিসুল করিম বরিশাল মহানগর ট্রাফিক পুলিশের সহকারী কমিশনারের পদে ছিলেন। তার বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়ায়। তিনি এক সন্তানের জনক। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের ৩৩ ব্যাচের ছাত্র ছিলেন। আনিসুল করিম ৩১তম বিসিএসে পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পান।

ডিএমপির অতিরিক্ত উপকমিশনার মৃত্যুঞ্জয় দে সজল জানান, সহকারী কমিশনার আনিসুল করিমকে কয়েকজন মিলে চিকিৎসার নামে এলোপাতাড়ি মারধর করে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এদিকে হাসপাতাল থেকে পুলিশ যে সিসি ক্যামেরার ফুটেজে উদ্ধার করেছে, সেটিতে দেখা গেছে, আনিসুল করিমকে সাত জন ব্যক্তি ধরে টেনে হেঁচড়ে একটি কক্ষে ঢুকাচ্ছে। এরপর তাকে ফেলে তিন জন তার পিঠের উপরে, দুজন পায়ের ওপরে এবং দুই জন হাত ধরে বেঁধে ফেলে। দুই জন কনুই দিয়ে তার পিঠ ও ঘাড়ে আঘাত করছে। মারধরের কয়েক সেকেন্ড পর অচেতন হয়ে পড়েন আনিসুল। তারপর তার মুখে পানি ছিটানো হয়, এই সময় মেঝেতে পানি দিয়ে কিছু একটা মুছতেও দেখা যায়। এর কিছুক্ষণ পর অ্যাপ্রন পরা দুই জন নারীকে তার বুকে পাঞ্চ করতে দেখা যায়।

ঘুমন্ত অবস্থায় চট্টগ্রামে একই পরিবারের ৯ জন দগ্ধ

0

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম নগরীতে গ্যাসলাইনের লিকেজ থেকে আগুনে ঘুমন্ত অবস্থায় একই পরিবারের ৯ জন দগ্ধ হয়েছেন।

রোববার মধ্যরাতে নগরের আকবর শাহ থানার উত্তর কাট্টলী এলাকার চার তলা ভবনে গ্যাসলাইনের লিকেজ থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আকবর শাহ থানার ওসি মো. জহির হোসেন।

তিনি জানান, মধ্যরাতে নগরের আকবর শাহ থানার উত্তর কাট্টলী এলাকায় চার তলা একটি বাসায় গ্যাসলাইনের লিকেজ থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। এ সময় আগুনে ঘুমন্ত অবস্থায় একই পরিবারের ৯ জন দগ্ধ হন।

তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ভর্তি করা হয়েছে।

আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়

0

দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় আবারও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ দশমিক ০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা চলতি মৌসুমে সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

রোববার (৮ নভেম্বর) তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে ।

পঞ্চগড় হিমালয়ের অনেক কাছাকাছি হওয়ায় উত্তর থেকে বয়ে আসছে হিমেল হাওয়া। একই সঙ্গে বইছে শীত ও কুয়াশা। বিগত বছরের তুলনায় সারা দেশের মতো পঞ্চগড়ে শীতের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে শুরু করেছে। ফলে গত তিনদিন থেকে সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গে কুয়াশাছন্ন হয়ে পড়ে পুরো জেলা, সঙ্গে হিমালের হাওয়া পাল্লা দেওয়ায় অনুভূত হচ্ছে শীত।

এদিকে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, আজ পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ দশমিক ০ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা চলতি শীত মৌসুমের ও সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে বিএনপির অভিনন্দন

0

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। রোববার এক অভিনন্দনবার্তায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বাইডেনের এই ঐতিহাসিক বিজয়ে বন্ধুপ্রতিম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের সঙ্গে বাংলাদেশের মানুষও আনন্দিত।

বিএনপি মহাসচিব অভিনন্দনবার্তায় বাংলাদেশের জনগণ, তার দল বিএনপি ও নিজের পক্ষ থেকে জো বাইডেনকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

মির্জা ফখরুল আশা প্রকাশ করে বলেন, বাইডেন মার্কিন জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে সক্ষম হবেন এবং একই সঙ্গে বিশ্বে শান্তি, নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় জোরালো অবদান রাখবেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আমলে দুই দেশের গভীরতম সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে অভিনন্দনবার্তায় তিনি বলেন, জো বাইডেন সেই ধারাকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

এ ছাড়া জো বাইডেনের সর্বাঙ্গীন সাফল্য, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন বিএনপি মহাসচিব।

একই অভিনন্দনবার্তায় নবনির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়ে তার সর্বাঙ্গীন সাফল্য, দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেন মির্জা ফখরুল।

বাইডেন ও কমলাকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন

0

আমেরিকার নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার পাঠানো এক বার্তায় নবনির্বাচিত এ দুই নেতাকে অভিনন্দন জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন। তার জয়ে দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কামালা হ্যারিস। এর মধ্য দিয়ে দেশটির ইতিহাসে প্রথম কোনো নারী ও প্রথম কোনো কৃষ্ণাঙ্গ এ আসনে বসলেন।

রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

0

রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্র্যাটদলীয় প্রার্থী জো বাইডেন।

ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি প্রতিদ্বন্দ্বিতার পর ৫৩৮ ইলেকটোরাল ভোটের মধ্যে ম্যাজিক সংখ্যা ২৭০টি নিশ্চিত করেছেন তিনি।

শনিবার পেনসিলভানিয়ার ২০টি ইলেকটোরাল ভোট জয়ের মধ্য দিয়ে তার ২৭৩টি ইলেকটোরাল ভোট নিশ্চিত হয়।

একইসঙ্গে প্রথম নারী ও প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন কমলা হ্যারিস।

এখনও নর্থ ক্যারোলিনা, জর্জিয়া, অ্যারিজোনা, নেভাদা ও আলাস্কা- এই পাঁচটি রাজ্যের ফল ঘোষণা বাকি রয়েছে। এর মধ্যে জর্জিয়ার ভোট পুনঃগণনা হচ্ছে।

নির্বাচনের ফল জানতে সবার দৃষ্টি ছিল পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের দিকে। এই রাজ্যে জিতলেই বাইডেনের জয় নিশ্চিত হতো। হয়েছেও সেটাই। পেনসিলভানিয়ায় জয়ের ফলে আগেই ২৫৩ ইলেকটোরাল ভোট পাওয়া বাইডেনের মোট ইলেকটোরাল ভোটের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭৩। বাকি পাঁচটি অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্প জয় পেলেও তার ইলেকটোরাল ভোটের সংখ্যা দাঁড়াবে ২৬৫।

এদিকে আগে থেকেই জয়ের আভাস দিচ্ছিলেন জো বাইডেন। শুক্রবার রাতে ডেলওয়্যারে নিজ শহর উইলমিংটন থেকে দেয়া এক ভাষণে বাইডেন বলেছিলেন, আমরা এখনও বিজয়ের চূড়ান্ত ঘোষণা পাইনি। তবে সংখ্যা বলছে এটি পরিষ্কার, আমরা এই প্রতিযোগিতায় জিতে যাচ্ছি। ডেমোক্র্যাট প্রার্থী বলেছিলেন, আমরা সাত কোটি ৪০ লাখের বেশি ভোট পেয়েছি; যা যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে আর কোনো প্রেসিডেন্ট প্রার্থী পাননি।

এদিকে ভোট গণনার শুরু থেকেই প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভোট জালিয়াতির কথা বলে আসছিলেন।

তবে এ অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল নির্বাচন কমিশনার এলেন ওয়াইনট্রাব বলেছেন, এ বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জালিয়াতির কোনো প্রমাণ মেলেনি।

শনিবার সিএনএনকে তিনি বলেন, রাজ্যের ও স্থানীয় কর্মকর্তারা, সারা দেশের নির্বাচন কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন। নির্বাচন যেভাবে হয়েছে তা নিয়ে খুব সামান্য কিছু অভিযোগ আমরা পেয়েছি। তিনি আরও বলেন, আমি বলতে চাই, ভোট জালিয়াতির কোনো ধরনের প্রমাণ কোথাও পাওয়া যায়নি। অবৈধভাবে ভোট দেওয়ার কোনো প্রমাণ নেই।

তিনি আরও বলেন, জালিয়াতির কোনো অভিযোগ কোথাও পাওয়া যায়নি। যেসব অভিযোগ করা হয়েছে, সেখানেও কোনো প্রমাণ দেওয়া হয়নি।

৭ নভেম্বরে পরাধীনতার সকল চক্রান্ত ব্যর্থ করে দিয়েছে দেশপ্রেমিক সিপাহী-জনতা: মির্জা আলমগীর

0

✍ বাবুল তালুকদার: সকল চক্রান্ত ব্যর্থ করে দিয়ে ৭ নভেম্বর দেশপ্রেমিক সিপাহী এবং জনতা জিয়াউর রহমানকে মুক্ত করে দেশের স্বাধীনতাকে সুসংহত করেন বলে মন্তব্য করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

৭ নভেম্বর শনিবার সকালে শেরে বাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর মহাসচিব এই মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘‘ ৭ নভেম্বর সিপাহী জনতার অভ্যুত্থানের মাধ্যমেই বাংলাদেশ দ্বিতীয়বার স্বাধীন হয়েছিলো। যে জাতীয় আন্তর্জাতিক কারণে ৩ নভেম্বরে স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে গৃহবন্দি করা হয়েছিলো, সেই চক্রান্তকে ব্যর্থ করে দিয়ে এদেশের দেশপ্রেমিক সিপাহী এবং জনগন তারা ৭ নভেম্বরে জিয়া্উর রহমানকে মুক্ত করে দে্শে সত্যিকার অর্থে স্বাধীনতাকে সুসংহত করেন। একই সঙ্গে গনতন্ত্রের যে পথ সেই পথের নতুন সুচনা করেন।”

‘‘ প্রকৃত পক্ষে ৭ নভেম্বর থেকেই এদে্শে একটি গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ, বহুদলীয় গণতন্ত্র এবং জনগনের শাসন প্রতিষ্ঠা করবার সেই সুযোগ সৃষ্টি হয়েছিলো এবং তার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন শহীদ জিয়াউর রহমান। এই ঐতিহাসিক দিবসটি স্মরণ করবার জন্য আমরা বিএনপির পক্ষ থেকে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষ থেকে আমরা জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্ বৃন্দ আজকে এখানে এসেছিলাম তার মাজারে পুস্পস্তবক অপর্ন ও তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য।”

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘‘ আজকের এই দিনটি বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আজকে দেশ একই ভাবে ১৯৭৫ এর পূর্বে যে একদলীয় শাসনব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিলো, জনগনের অধিকারকে হরণ করা হয়েছিলো। আজকে আবার ঠিক একই কায়দায় বাংলাদেশের জনগনের অধিকারকে হরন করে নি্যে গণতন্ত্রকে ধবংস করে দিয়ে আওয়ামী লীগ আজকে জোর করে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে।”

‘‘ সেজন্য আজকে আমরা আজকে শপথ নিয়েছি যে, আমরা গণতন্ত্রকে উদ্ধার করবো, মিথ্যা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আমাদের নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব এবং এই গণতন্ত্রের সংগ্রামকে অবশ্যই জয়ী করবো ইনশাল্লাহ।
সকাল ১১টায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী দলের প্রতিষ্ঠাতার কবরে পুস্পমাল্য অর্পন করে প্রয়াত নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তারা নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন।

এরপর দুপুর সাড়ে ১২টায় মহানগর দক্ষিন ও উত্তর, যুব দল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দল, কৃষক দল, ছাত্র দল, তাতী দল, মতস্যজীবী দলসহ অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান স্বপরিবারের নিহত হওয়ার পর সেনা প্রধানের দায়িত্ব আসেন জিয়াউর রহমান। এরপর মুক্তিযুদ্ধে অন্যতম সেক্টর কমান্ডার খালেদ মোশাররফের নেতৃত্বে সেনা বাহিনীতে একটি অভ্যুত্থান হয়, জিয়া হন গৃহবন্দী।
৭ নভেম্বর মুক্তিযুদ্ধের আরেক সেক্টর কমান্ডার কর্নেল তাহেরের নেতৃত্বে পাল্টা অভ্যুত্থানে আটকাবস্থা থেকে মুক্ত হন জিয়া। এর মধ্য দিয়ে ক্ষমতার কেন্দ্র বিন্দুতে চলে আসেন জিয়া।

বিএনপি এই দিনকে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস, আওয়ামী লীগ মুক্তিযোদ্ধা সৈনিক হত্যা দিবস এবং জাসদ সিপাহী-জনতার অভ্যুত্থান দিবস হিসেবে পালন করে।

৭ নভেম্বর উপলক্ষ্যে ভোরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশে দলীয় অফিসে দলীয় পতাকা উত্তালন করেছে। দিবসটিকে সামনে রেখে প্রকাশ করেছে জিয়াউর রহমান ছবি সম্বলিত পোস্টার।

বিকাল তিনটায় রয়েছে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা। দিবসটি উপলক্ষে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও সহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পৃধক পৃথক বানীতে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

পেনসিলভানিয়াতে এগিয়ে জো বাইডেন : আমেরিকা নির্বাচন ২০২০

0

পেনসিলভানিয়ায় এগিয়ে থেকে জো বাইডেন কার্যত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের হোয়াইট হাউজে ফেরার পথ আটকে দিয়েছেন। পেনসিলভানিয়ায় এগিয়ে থেকে জো বাইডেন কার্যত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের হোয়াইট হাউজে ফেরার পথ আটকে দিয়েছেন

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আরেকটি রাজ্য পেনসিলভানিয়ায় জো বাইডেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাম্পকে ছাড়িয়ে কয়েক হাজার ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে গেছেন।

জো বাইডেন যদি পেনসিলভানিয়ায় তার এই অবস্থান ধরে রাখতে পারেন তাহলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পুনঃনির্বাচনের স্বপ্ন এখানেই ধসে পড়বে বলে মনে করা হয়। পেনসিলভানিয়ায় জয়লাভ ছাড়া কোনভাবেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ২৭০টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট পাবেন না।

পেনসিলভানিয়ার ভোট গণনার হিসেবে এই নাটকীয় পরিবর্তনের পর জো বাইডেন এখন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে বলে মনে করা হচ্ছে।

জো বাইডেন আরও তিনটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য- জর্জিয়া, অ্যারিজোনা এবং নেভাডাতেও এগিয়ে আছেন।

এবারের এই নির্বাচনী লড়াইয়ের শুরু থেকেই বলা হচ্ছিল, পেনসিলভানিয়াতেই আসলে নির্ধারিত হবে কে হোয়াইট হাউসের পরবর্তী বাসিন্দা হবেন।

২০১৬ সালের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেখানে বিজয়ী হয়েছিলেন হিলারি ক্লিনটনকে হারিয়ে। এবারও নির্বাচনের রাতের ভোট গণনায় তিন প্রায় ৫ লাখ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে ছিলেন।

কিন্তু ডাকযোগে আসা ভোট গণনার কাজ শুরু হওয়ার পর পেনসিলভানিয়ায় তার সঙ্গে জো বাইডেনের ভোটের ব্যবধান কমে আসতে থাকে।

এর আগে নির্বাচনের ফল নির্ধারণের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ আরেকটি রাজ্য জর্জিয়ায় ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পেছনে ফেলে ৯১৭ ভোটে এগিয়ে গেছেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যদি পুনঃনির্বাচিত হতে চান, পেনসিলভানিয়া এবং জর্জিয়া- দুটিতেই জয়লাভ করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এখন দুটি রাজ্যেই জো বাইডেন এগিয়ে যাওয়ার পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জয়লাভের পথ একেবারেই আটকে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

Stay connected

21,792FansLike
2,429FollowersFollow
0SubscribersSubscribe

Latest article

বুড়িগঙ্গা নদীর প্রায় এক একর জমি ভরাট করে পাথর ব্যবসা

0
বুড়িগঙ্গা নদীর প্রায় এক একর জমি ভরাট করে রীতিমতো পাথরের ব্যবসা করছেন ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) হাজী মোহাম্মদ সেলিম। পাথর মজুদ ও ওঠানামার...

একসঙ্গে বড় পর্দায় আমির-শাহরুখ

0
ভারতের জি নিউজে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, আমির খানের পরবর্তী সিনেমা ‘লাল সিং চাড্ডা’য় অভিনয় করতে দেখা যাবে কিং খান শাহরুখকে। দুই খান এক...

মানসিক হাসপাতালে পুলিশ কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যা

0
ঢাকার আদাবরে একটি মানসিক রোগ নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য যাওয়া আনিসুল করিম নামে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার আদাবরের ‘মাইন্ড এইড’ নামের...